পিসিতে বসে ক্লিক করতে জানলেই আপনি হয়ে যাবেন একজন ফ্রিল্যান্সার…

27
542

কেমন আছেন আপনারা ? আশা করি ভালো। আমিও মোটামুটি ভালো আছি। অনেক দিন পর ইটিতে লিখতে বসলাম। কাজের চাপ আর বিশেষ কিছু কারনে নিয়মিত লিখতে পারছিনা। শেষ কবে লিখেছি মনে নাই। প্রফেশনাল ব্লগিং এর ব্যাপারে যে চেইন টিউন শুরু করেছিলাম তাও শেষ করতে পারলাম না। তবে আবারো খুব শীঘ্রয়ই শুরু করার ইচ্ছা আছে। যাই হোক চলুন কথা না বাড়িয়ে আজকের বিষয়ে আলোকপাত করা যাক।

মনে পরে না আপনাদের সেই দিনের কথা গুলো – মূল কথায় আসিঃ

আসলে এমনিতেই আমাদের দেশে ইন্টারনেট ইউজার তুলনা মূলক কম আর যারাই নেট ইউজ করছে তাঁরা শুরুটা করছে ফেসবুক/মেসেঞ্জারে সময় দিয়ে। হঠাৎ যখন শুনেছে যে ইন্টারনেটে টাকা আয় করা যায়, আর যাচাই বাছাই না করেই কিছু লোকের অপপ্রচারণায় নেমে পড়ছে পিটিসি কিংবা এমএলএম এর মতো ‘হায় হায়’ কোম্পানিতে। আমাদের দেশের মানুষ বোকা কিনা জানিনা তবে তারা ঠকেও শেখে না ! কত কোম্পানী এল গেল, টাকার লোভে তাদের পাতা ফাঁদে পা দিল মানুষ। শেষে সর্বশান্ত হয়ে তবে সবার জ্ঞান ফেরে। একটা সময় ছিল যখন বিদেশী (বিশেষত ভারতীয়) কিছু কোম্পানী ও তাদের এদেশীয় এজেন্টরা প্রচার শুরু করল সারা বিশ্বে বছরে লক্ষ লক্ষ প্রোগ্রামার প্রয়োজন। হতাশ বেকার যুবকদের তারা টার্গেট করল। হাজার হাজার টাকার বিনিময়ে তাদের ওখানে ভর্তি হল লক্ষ তরুন তরুনী। প্রোগ্রামার কয়জন হয়েছে? কয়জনইবা ঠিক মত কম্পিউটার চালাতে পারে? কিন্তু বেকারত্বের সুযোগ নিয়ে বেকার যুবকদের কোটি কোটি টাকা নিয়ে তারা সরে পড়ল। কোথায় আজ কোথায় আজ সাইটটক, স্পিক এশীয়া এবং ইউনি পে টু ইউ ? আর তাদের এমএলএম বিজিনেস ??

শুরু হওয়া ফ্রিল্যান্সিং বিপ্লব এবং দেশের বর্তমান পরিস্থিতিঃ

কয়েক বছর যাবৎ বাংলাদেশে শুরু হয়েছে অনলাইন ফ্রিল্যান্সিং বিপ্লব, কাজ জানা কর্মঠ ছেলেরা এই ক্ষেত্রকে করে তুলেছে সম্ভাবনাময়। আর এর পিছনে লেগে পরেছে ঠিক ঐ ধরনের কিছু সার্থন্যেশি মহল যারা হাতিয়ে নিতে চায় সাধারনের সর্বোস্য – এবারো টার্গেট বেকার যুব সম্প্রদায়। সবাই কাজ না শিখে টাকা আয় করতে চায়, কোম্পানীগুলোও সেই স্বপ্ন দেখায়। কিন্তু ব্যাপারটা যদি এত সহজ হত তবে কেউ বেকার থাকত না। অনলাইনে প্রচুর ফ্রিল্যানসি কাজ আছে, কিন্তু সেটা অনেক পরিশ্রম করে, প্রতিযোগীতা করে পেতে হয়। www.odesk.com, www.freelancer.com, www.vworker.com, www.elance.com এমন আরো অনেক সুপ্রতিষ্ঠিত অনলাইন মার্কেটপ্লেস আছে যেখানে কাজ পাওয়া যায় এবং প্রায় সবখানেই ফ্রি মেম্বারশীপ পাওয়া যায়।বেকারত্বের সুযোগ নিয়ে ডুল্যান্সার বা স্কাইল্যান্সারের মতো ওয়েবসাইট আমাদের দেশের সহজ সরল মানুষের মেধা গুলোকে পঙ্গু করে দিচ্ছে। ইন্টারনেট সম্পর্কে সঠিক জ্ঞান না থাকায় সময়টাকে উপযুক্ত ব্যবহার না করে কিছু এমএলএম আর পিটিসি সাইটের পিছনে নিজেদের মননশীলতা বিকিয়ে দিচ্ছে তরুণরা।

হায়রে প্রতারক পিটিসি… ক্লিক করেই  ফ্রিল্যান্সার !

অথচ আমাদের দেশের কিছু কুলংগার দেশের বেকারদের বেকারত্বের এই সুযোগ নিয়ে আবার কোটি কোটি টাকা তুলে নিতে চাচ্ছে। এবারে প্রত্যক্ষভাবে সজোরে সামনে নিয়ে এসেছে কিছু সাইটকে। উঠে পরে লেগেছে এর প্রচারাভিযানে। কয়েকটা পত্রিকাতে টাকা দিয়ে রিভিঊ ছেপে সেরা ফ্রিল্যান্সিং সাইট বলে মিথ্যা অপপ্রচার চালাচ্ছে। এই সাইটটি সম্পূর্ণরুপে ভুয়া একটি সাইট যারা নিজেদের গায়ে ফ্রিল্যান্সিং টাইটেল লাগিয়ে ছেলেপেলেদের ভুলপথে পরিচালিত করছে। চাইছে ডেস্টিনির মত নেটওয়ার্ক বিস্তার করতে। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলেও এদের হাজারো অনুসারী হয়ে গেছে। ১০০ ডলার বা ৭০০০ টাকার (কনভার্সান রেটটাও তারা কমিয়ে দিয়েছে) বিনিময়ে সেখানে সদস্য হতে হয়।

এখনি প্রয়োজন সতর্কতা, কর্মমুখী কিছু শিখুনঃ

এসব সাইট আমাদের মেধাগুলোকে অলস করে দিচ্ছে। নিজে কিছু করার ব্যাপারে অনুৎসাহিত করছে এবং প্রোডাক্টিভিটি কমিয়ে দিচ্ছে। সামান্য কিছু টাকার নেশায় অনেকে মূল্যবান সময় নষ্ট করছে কিন্তু কিছুই শিখছে না। ইন্টারনেট একটা বিশাল প্লাটফর্ম যেখানে কিছু করে দেখানোর অনেক অনেক সুযোগ রয়েছে। যদি টাকা ইনকাম ই যদি সব হয়ে থাকে তবে ‘পতিতা দিয়ে ব্যবসা করেও বা ভিক্ষা করেও টাকা পাওয়া যায়। এবং অনেকে করেও। কিন্তু সবাই ভিক্ষা কিংবা পতিতা ব্যবসা কেন করে না ? আসলে দরকার সঠিক গাইড লাইন। নতুনরা অনলাইন জগতের বিভিন্ন ক্ষেত্রগুলোতে নিজেদের ভালো অবস্থান তখনি তৈরি করতে পারবে যখন তাঁরা ভালো গাইডলাইন আর ভালো শিক্ষা পাবে, এ জন্য আমি বলবো যাচাই বাছাই করে সিদ্ধান্ত নিতে। ক্লিক করেই টাকা ইনকাম করা যায় এমন ধারনা পাল্টাতে হবে, কর্মমুখী কিছু শিখুন যা ভবিষ্যতে অনেক অনেক কাজে আসবে।

আমি বলবো যাদের সত্যিকারেই ফ্রিল্যান্সিং কিংবা ব্লগিং করছে এবং অভিজ্ঞ তাদের শরণাপন্ন হোন, কিংবা কোন সুনাম ধন্য আইটি ফার্ম বা আউটসোর্সিং প্রতিষ্ঠান এর মাধ্যমে ওয়েব ডিজাইন-ডেভেলপিং, গ্রাফিক্স ডিজাইন, মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট, প্রোগ্রামিং, গেম ডেভেলপমেন্ট, সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন অথবা অন্য কোন অনলাইন মার্কেটিং স্ট্র্যাটেজি হাতে কলমে শিখে নিন।

পদে পদে মানুষের উল্টা পাল্টা কথা শুনবেন তাই বলে কি চুপ করে থাকবেন ?

সতর্ক করুন আপনার ভাইকে, আপনার বোনকে, প্রতিবেশীকে, বন্ধুকে। যে এই সমস্ত সাইটের সদস্য হওয়ার বাজে প্রস্তাব নিয়ে আসবে তাকে বর্জন করুন। আমাদের মেধা গুলোকে এভাবে ঝরে পড়তে দিয়েন না। আসুন সবাইকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে এগিয়ে আসি, পথহীনদের সতঁর্ক করি কারন এরা তঁ অবুঝ জানে না কোনটা সঠিক কোন টা ভুল আর কোনটা লাইফ চেঞ্জ করে দিতে সক্ষম। প্লিজ সবাই সোচ্চার হোন, আপনার পাশের একটা ছেলেও যেন আর প্রতারিত না হয়, সময় অপচয় করে নিজের মেধাটাকে বিকিয়ে না দেয় ! লেখাটির লিংক শেয়ার করে দিন ফেসবুক ও অন্য সবখানে। পদে পদে হুমকি আর মানুষের উল্টা পাল্টা কথা আপনাকে শুনতে হবে তাই বলে কি পিছিয়ে আর চুপ করে থাকবেন ? না এমন টা কখনোই কাম্য নয়। আপনার উপযুক্ত যুক্তি গুলো দিয়ে হলেও তাদের কিছু বলুন…

ক্লিক করা এমএলএম বেসড ফেকল্যান্সার সাইটের ল্যান্সারদের বলছি…

ভাই ইনকাম করতে পারলে অসুবিধা নাই, করেন আপনারা। বাঙালি জাতির হুস একটু পড়েই হয়। কিন্তু কথা হচ্ছে নিজেকে ফ্রিল্যান্সার ভাইবা ভুল করিয়েন না। ক্লিক করবেন করেই কি ফ্রিল্যান্সার হয়ে গেছেন ! আর অরিজিনাল ফ্রিল্যান্সাররা সারা জীবন খাইটাও না হয় না। আপনাদের কাছে আমার খুব সহজ কিছু প্রশ্ন… ভাই আপনাদের কি মনে হয় না আপনার মেধাটাকে ঐ সাইটগুলো অলস করে দিয়ে কিছু শেখার বা নিজে কিছু করার ব্যাপারে অনুতসাহিত করছে ? আমাদের নিজেদের প্রডাক্টীভিটি কমিয়ে দিচ্ছে ? তবে শুনেন সামান্য কিছু টাকার নেশায় আমরা আমাদের মুল্যবান সময় নষ্ট করে কিছু ই শিখছি না, কিন্তু কর্মমুখি কিছু জানা থাকলে এর চেয়েও বেশি ইনকাম করা সহজ ত। ভাই শেষে একটা কথা বলেতেই হয় “ ঘুমন্ত মানুষ জাগানো যায় কিন্তু ঘুমের ভান করে থাকা মানুষকে জাগানো যায় না”।

 

কৃতজ্ঞতা প্রকাশঃ টেকপ্রিয় এবং আল আমীন কবিরকে।

comments

27 COMMENTS

  1. Thanks Sumon for your writing on a crucial issue. Undoubtedly, some people will lose their everything by getting involved themselves in such a fake company. Best Luck.

  2. vai aisob sosta blog likhe to valoi income korar buddhi ber korsen. dolancer er member kom na ar ar opposit e likhle bes vaalo apner blog click porbe……bah valo buddhi, but ai sob chora buddhi ber na kore valo buddhi ber korun. kaje lagbe.

  3. ইদানিং ডেস্টিনির মতন এই সব লোক গুলো আমাদের অনেক বিরক্ত করছে। আমরা বাংঙ্গালিরা যে কত বেকুব তা এদের মেম্বারদের দেখলে বুঝা যায়। আপসুস… 🙁

  4. ভাই আপনাদেরকি খেয়েদেয়ে কন কাজ ? নেই সারাদিন বসেবসে কার কি দুর্বলতা আছে তা ভাবেন । আগে ভাবেন না আপনার কি ? আছে মানলাম আপনার Dolancer ভাল লাগেনা বা Dolancer খারাপ তা আপনার কাছের ভাল এমন কি সাইট আছে যেটা থেকে এমন আয় করাজায় হ্যা আপনি হয়ত Frilancer এর কথা বলবেন কিন্তু ঐখানে কাজ পাওয়াত সোনার হরিনের মত । আপনি একতা ভাল কিছু করে দেখার নাহয় যেটা চলতাছে চলতে দিননা ।

    • আগে ক্ষমা চেয়ে নেই তার পরে কমেন্ট করি ।

      ভাল ভাবে পড়ালেখা শেষ করে সুন্দর একটা জব বা ব্যাবসা প্রতিস্টান খুলে মাসে ২০০০০-৫০০০০০ টাকা ইনকাম করা বেটার নাকি ফার্ম গেটে ভাংগা প্লেট আর ছেড়া পাঞ্জাবী পড়ে ভীক্ষা করা বেটার ।

      ২টাতেই কিন্তু মাস শেষে একটা এমাউন্টের ইঙ্কাম সম্ভব ।

      এখন আপনার মতামত যদি ২য় কর্মের পক্ষে যায় তবে বলার কিচ্ছু নাই । যান পিটিসিতেই থাকেন , ফ্রীল্যান্সার হবার দরকার নাই ।

    • Dolancer is not a real PTC Site (I think you not agree with me because you are a member of Dolancer). Dolancer have only for few days. One time they must gone.

      Online have some real PTC for long time. These are Clixsence, Neobux etc. These site are free to Joning!

      PTC jobs only for him/her who have extra time or who is lazy.

      Please don’t Join any PTC site without cheeking Payment Proof.

      Please do not Join any site like as Dollencer.

  5. Hello Brother you r right but all person has no experience/ability/merit to do freelancing you know that there has computer programing type and so complex work there.May be u do freelancing as u know well computer.It is not possible to do success by freelancing without fully training/course for 2 years. I am also doing freelancing.It is not easy as dolancer. I think whose did not know computer well dolancer is welcome for them. Thank you .

  6. Ei bolod der dhoira laththi dite ichcha kore. Beta bolodera freelancer, odesk eigula charao onek valo ptc site ase jara akta poisao nai na. Seigula to dekhbana, kothai ase na ”dui diner boiragi vatere koi rice”. Je e mail kare koi eidao janto na aj k tara ” dolancer’s freelancer”. Eigula dekhle dukhkhe amar pad ase. Jottoshop faltu

  7. আপনার সাথে পুরা একমত জানাই । মাথায় একটু ঘীলু থাকলেও এটা বোঝা সম্বব যে ক্লিক করে ফ্রীল্যান্সার হওয়া যায় না ।

    • You Join any good Computer Training Center. You can also buy some book about freelance outsourcing and Programming. Thank you.

  8. Online have lot of PTC site. But maximum PTC site is Fake or Scams. Only some PTC site is real.

    Some PTC site like as clixense or Neobux really give Payment.

    But you can earn few money from PTC site so if you want to earn money more so please you must lean Freelancing & any Programming.

    PTC jobs only for him who have extra time or who is lazy.

    Please don’t Join any PTC site without cheeking.

    Please do not Join any site like as Dollencer.

  9. মামুনুরর রশীদ ভাইয়ের মত একজন লোক আমাদের খুব প্রয়োজন.যিনি হাতে কলমে ফ্রীল্যানসার তৈরি করে নেন তার গ্রুপে।নিজেও উপারজন করেন আর অন্যকেও করতে সাহায্য করেন।

    • ঠিক বলেছেন। ধন্যবাদ… 🙂

  10. লোভে পড়েছিলাম আমার এখন মনে পড়ে একটা সাইটে শর্ত ছিল ১৫ ডলার হলে তা এলার্ট পের মাধ্যমে উত্তোলন করা যাবে কিন্ত ১৫ ডলার হওয়ার যখনই উত্তোলন করতে গেলাম তারা মেসেজে জানাল যে প্রিমিয়াম মেম্বার হতে হবে নিদিষ্ট ফি দিয়ে । আবার কিছু সাইট ছিল যে গুলোতে প্রতি ক্লিকে এক ডলার করে জমা হত এবং ১০০০ ডলার হলে উত্তোলন করা যাবে এ ধরণের শর্ত ছিল পরে দেখলাম সব ভূয়া। যার কারণে হতাশ হয়ে আউট সোসিং থেকে নিজেকে সরিয়ে নিলাম। বর্তমানে আর্ন ট্রিকস এর বিভিন্ন আর্টিকেল পড়ে বুঝতে পারলাম যে আসলে আউটসোসিং করতে হলে দক্ষতা বিকল্প নাই। সেটা অন্তত যে একটি বিষয়ে হলে ও। ধন্যবাদ লেখককে আমাদেরকে সর্তক করার জন্য।

  11. আমার ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে বলব আমিও প্রথমে ইন্টারনেটে ক্লিকে ডলার এর লোভে পড়েছিলাম আমার এখন মনে পড়ে একটা সাইটে শর্ত ছিল ১৫ ডলার হলে তা এলার্ট পের মাধ্যমে উত্তোলন করা যাবে কিন্ত ১৫ ডলার হওয়ার যখনই উত্তোলন করতে গেলাম তারা মেসেজে জানাল যে প্রিমিয়াম মেম্বার হতে হবে নিদিষ্ট ফি দিয়ে । আবার কিছু সাইট ছিল যে গুলোতে প্রতি ক্লিকে এক ডলার করে জমা হত এবং ১০০০ ডলার হলে উত্তোলন করা যাবে এ ধরণের শর্ত ছিল পরে দেখলাম সব ভূয়া। যার কারণে হতাশ হয়ে আউট সোসিং থেকে নিজেকে সরিয়ে নিলাম। বর্তমানে আর্ন ট্রিকস এর বিভিন্ন আর্টিকেল পড়ে বুঝতে পারলাম যে আসলে আউটসোসিং করতে হলে দক্ষতা বিকল্প নাই। সেটা অন্তত যে একটি বিষয়ে হলে ও। ধন্যবাদ লেখককে আমাদেরকে সর্তক করার জন্য।

  12. ক্লিক করে ইনকামের কথা শুনলে আমার হাসিতে শুয়ে পড়তাম ! হায়রে কত লোক যে ধোঁকা খেয়েছে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here