ক্যারিয়ার হোক গ্রাফিক্স ডিজাইনে!

আঁকা ঝোঁকাতে ঝোক বেশি! ক্রিয়েটিভ কিছু করতে মন চায়? সময় পেলেই কম্পিউটারের পেইন্ট টুলস, ফটোশপ, ইলাস্ট্রেটর নিয়ে গাছ, পাখি, ফুল, ফল, বাড়ির দৃশ্য বা কারো নাম বা ছবি নিয়ে কাজ শুরু করে দেন? পার্ট-টাইম বা ফুল টাইম কাজ খুঁজছেন? অথবা অনলাইন মার্কেটপ্লেসে কাজ করে অপেক্ষাকৃত বেশি আয় করতে চান? তাহলে ভেবে চিন্তে নেমে পড়ুন গ্রাফিক্স ডিজাইনে। অন্যান্য সব চাকরির থেকে গ্রাফিক্স ডিজাইন পেশাটি সবচেয়ে নিরাপদ ও ঝামেলা বিহীন। নিরাপদ ও ঝামেলাবিহীন বলার কারণ হলো অন্যান্য সব পেশার বিপরীতে গ্রাফিক্স ডিজাইনারের কোনো কাজের অভাব হয় না । এটা একটি সন্মানজনক পেশাও।

গ্রাফিক্স ডিজাইনার কে?
আমরা প্রথমেই জেনে নিই গ্রাফিক্স ডিজাইনার কে বা তার কাজ কি। তার আগে বলি, গ্রাফিক্স ডিজাইন হলো আর্ট বা কলা’র এ মাধ্যম। ডিজাইনার তার কাজের মাধ্যমে এন্ড ইউজার অর্থ্যাৎ সর্বশেষ ব্যবহারকারীর মধ্যে একটি ভালো প্রভাব ফেলতে পারেন। যেটি সেই ব্যবহারকারীর ব্রেইন এ একটি দীর্ঘস্থায়ী প্রভাব ফেলতে পারে। তাই গ্রাফিক্স ডিজাইনার হলেন তিনি, যিনি গ্রাহকের চাহিদানুযায়ী বেশ কিছু কালার, টাইপফেস, ইমেজ এবং অ্যানিমেশন ব্যবহারের মাধ্যমে তার চাহিদা পূরণ করতে সক্ষম হন। এটার আউটপুট ডিজিটাল বা প্রিন্ট উভয়ই হতে পারে। আর বর্তমান সময়ে সচরাচর পাওয়া বিভিন্ন টুলস ও লেআউট ব্যবহারের মাধ্যমে গ্রাফিক্স ডিজাইনার তার কাজকে আরো বেশি ক্রিয়েটিভ ও গ্রাহকের চাহিদা পূরণ করে বাড়তি তৃপ্তি দিতে পারছেন।

কাজের ক্ষেত্র
একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনারের দায়িত্ব হলো তার কাজ, পণ্য বা সেবার ওভারঅল লুক ও ভাবমূর্তি ভালোভাবে ফুটিয়ে তোলা। কোনো পূর্বপরিকল্পনা ছাড়া ডিজাইন করা যতোই ভালো পণ্য হোক না কেনো সেটি প্রথমেই ব্যার্থ হবে। তাই একটি নিদ্দিষ্ট পরিকল্পনা ও ক্রিয়েটিভিটি একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনারের মানকে উন্নত করে। তাই নিজেকে ভালোভাবে তৈরি করতে পারলে একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনারের কাজের অভাব হয় না! সবচেয়ে বড় বিষয় হলো সম্প্রতি দেয়া তথ্যমতে, বর্তমানে প্রায় ৩৫ শতাংশ গ্রাফিক্স ডিজাইনার আত্বনির্ভরশীল ও স্বাবলম্বী।

একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনারের কাজের ক্ষেত্র হিসেবে ইন্টার্যা ক্টিভ মিডিয়া, প্রমোশনাল ডিসপ্লে, জার্নাল, কর্পোরেট রিপোর্টস, মার্কেটিং ব্রোশিউর, সংবাদপত্র, ম্যাগাজিন, লোগো ডিজাইন, ওয়েবসাইট ডিজাইনসহ বিভিন্ন বিষয় রয়েছে। লোকাল মার্কেট বা অনলাইন মার্কেটপ্লেস যেটাই বলি না কেনো প্রতিনিয়ত গ্রাফিক্স ডিজাইনের কাজের পরিমাণ বাড়ছে।

গ্রাফিক্স ডিজাইনার হতে শিক্ষাগত যোগ্যতা কি প্রধান বিষয়?
আসলে সত্যি বলতে কি, পেশা হিসেবে একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনার হতে গেলে শিক্ষাগত যোগ্যতা কোনো বিষয় না। এখানে মূলত আপনার কাজের দক্ষতাই প্রধান বিষয়। আপনার ক্রিয়েটিভিটিউ আপনাকে সফলতা উচ্চ শিখরে নিয়ে যেতে পারে। তবে যেসব প্রতিষ্ঠান শিক্ষাগত যোগ্যতা বিষয়টি বিবেচনা করে তাদের প্রত্যাশা মূলত গ্রাফিক্স ইনস্টিটিউট থেকে ডিপ্লোমা, ফাইন আর্টসে ব্যাচেলর ডিগ্রি বিষয়টি চান। তবে সব ক্ষেত্রেই তারা কাজের দক্ষতার বিষয়টি আগে গুরুত্ব দেন। তাই আপনাকে আগে কাজের ক্ষেত্রে যোগ্য হতে হবে।

গ্রাফিক্স ডিজাইনারের আয়
প্রশ্নই আসতে পারে প্রতি মাসে একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনারের আয় কত হতে পারে? এ সম্পর্কে ডিজাইনারদের বেতন নিয়ে কাজ করা আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান ডিজাইনার স্যালারিজ এর মতে, একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনার প্রতি বছরে গ্রাফিক্স ডিজাইন বা এ সম্পর্কিত চাকরি বা কাজ করে ১ লাখ ডলার সেই হিসেবে বাংলাদেশে প্রায় ৮০ লাখ টাকা আয় করতে পারে। বাংলাদেশে গ্রাফিক্স ডিজাইনে ডিপ্লোমাধারীর বেতন মাসে সাধারণত ২০ থেকে ৫০ হাজার টাকা। তবে ব্যাচেলর ফাইন আর্টসে ব্যাচেলর ডিগ্রিধারীদের বেতন মাসিক ১ থেকে দেড় লাখ টাকা পর্যন্ত হতে পারে। এছাড়া অনলাইন মার্কেটপ্লেসে আপনি একটি লোগো ডিজাইন করলে ৫ থেকে শুরু করে ২ হাজার ডলার পর্যন্ত হতে পারে। তবে দক্ষতার ক্ষেত্রে ও বেশি ক্রিয়েটিভ কাজ হলে এটি ৫ হাজার ডলার পর্যন্তও হতে পারে। এছাড়া একটি ওয়েবসাইটটের ফাস্ট পেজ ডিজাইন করার ক্ষেত্রে ৫০ ডলার থেকে শুরু করে ৩ হাজার ডলার পর্যন্ত পেতে পারেন। ৯৯ডিজাইন’স ডটকম, ফ্রিল্যান্সার কনটেস্ট, ওডেস্কসহ অনেক ওয়েবসাইট বা অনলাইন মার্কেটপ্লেস রয়েছে যেখানে আপনি এই কাজগুলো পাবেন। মূলত কাজের মান ও ক্রিয়েটিভি এর উপরই ভিত্তি করে আপনার আয় নির্ভর করবে।

কোথায় শিখবেন?
প্রফেশন হিসেবে গ্রাফিক্স ডিজাইনকে নিতে অবশ্যই কোনো ভালোমানের ডিজাইনার বা প্রতিষ্ঠানে প্রশিক্ষণ নেওয়া প্রয়োজন। বাংলাদেশে তথ্যপ্রযুক্তি ও দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণের অন্যতম পথিকৃত প্রতিষ্ঠান ডেভসটিম ইনস্টিটিউট হতে পারে আপনার প্রথম পছন্দ! আমরা আপনাকে সুপার দক্ষ গ্রাফিক্স ডিজাইনার হিসাবে তৈরি করার লক্ষ্যে ৩ মাসব্যাপি ‘প্রফেশনাল গ্রাফিক্স ডিজাইন’ প্রশিক্ষণটির আয়োজন করেছি।

কি কি শেখানো হবে?
বর্তমানের বাজার চাহিদা বোঝার জন্য একজন ডিজাইনারকে এই বিষয়ে প্রয়োজনীয় জ্ঞান ও সফটওয়্যারের ব্যবহার জানা জরুরী। ৩ মাসব্যাপি এই কোর্সে কোর গ্রাফিক্স ডিজাইন, টাইপোগ্রাফি, গ্রাফিক্স ডিজাইন সফটওয়্যার ও টুলের ব্যবহার, মার্কেটট্রেন্ড সম্পর্কে ধারণা ও অনলাইন মার্কেটেপ্লেসে কাজ করার জন্য প্রয়োজনীয় সকল বিষয়ে তাত্বিক ও ব্যবহারির প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। ইন্টার্নশীপ, লাইফ টাইম সাপোর্টের পাশাপাশি রয়েছে ডেভসটিমের সঙ্গে কাজ করার সুযোগ।

আমাদের কম্পিউটার ল্যাব এবং সুবিধা
আমাদের কম্পিউটার ল্যাবে প্রতিজন শিক্ষার্থীর জন্য রয়েছে আলাদা আলাদা কম্পিউটার, এখান থেকেই একজন শিক্ষার্থী প্র্যাকটিস শুরু করতে পারবেন। আর লেকচারের পাশাপাশি বড় প্রজেক্টরের মাধ্যমে লাইভ কাজ করে দেখানো হয় প্রতিটি ক্লাসে। আর ক্লাশ শেষে প্রতিদিন বিভিন্ন ভিডিও এবং পিডিএফ রিসোর্স সরবরাহ করা হয় যেখান থেকে একজন শিক্ষার্থী তার বিষয়গুলোকো আরও ভালোভাবে আয়ত্ব করতে পারেন। ক্লাশ শেষে ওডেস্ক সহ বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে কিভাবে কাজ করতে হয় সেটিও দেখিয়ে দেয়া হবে।

যারা শেখাবেন
• মোহাম্মদ বাহারুল আলম, ক্রিয়েটিভ ডিজাইনার, ডেভসটিম লিমিটেড

ভর্তি এবং প্রশিক্ষণ ফি
আমাদের আপকামিং ব্যাচটির ক্লাশ শুরু হবে ২৫ নভেম্বর থেকে। ক্লাশ হবে সপ্তাহে দুদিন। প্রতি রোব এবং সোমবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত। দু’মাসের তাত্বিক প্রশিক্ষণ এবং এক মাসের রিয়েল লাইফ প্রজেক্ট সহ মোট প্রশিক্ষণ ফি: ১৫,০০০ টাকা। এছাড়া লাইফটাইম সাপোর্ট সুবিধা পাবেন প্রত্যেক শিক্ষার্থী।

আরোও বিস্তারিত জানতে চাইলে বা ইভেন্ট সংক্রান্ত কোন প্রশ্ন থাকলে ইভেন্ট ওয়ালে করতে পারেন। আলোচনার জন্য যোগ দিতে পারেন আমাদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেইজে।

ডেভসটিম সোশ্যাল নেটওয়ার্ক
১. ফেসবুক পেজ: http://facebook.com/DevsTeam
http://facebook.com/DevsTeamInstitute
২. আমাদের টুইটার: http://twitter.com/DevsTeam

৩. ফেসবুক গ্রুপ: https://www.facebook.com/groups/DevsTeam
৪. আমাদের লিংকেডিন: http://www.linkedin.com/company/devsteam

আমাদের অফিসের ঠিকানা:
ডেভসটিম লিমিটেড,
স্যুট: ১২১২, লেভেল: ১২, মাল্টিপ্লান সেন্টার
৬৯-৭১ এলিফ্যান্ট রোড, ঢাকা – ১২০৫
ফোনঃ ০২৯৬৬২৬৪৪, ০১৯১১-৪৬৪৭১০, ০১৭১১২৬৭৯১১, ০১৮১২-১৫৪৪৫৯

নিবন্ধনের শেষ তারিখ: ২২ নভেম্বর ২০১২

তবে আসন সংখ্যা সীমিত। আপনার আসনটি আগেভাগে বুকিং করে রাখুন। আপডেটেড থাকার জন্য আমাদের ফলো করবেন আশা করি। 🙂

ডেভসটিম ইনস্টিটিউট আয়োজিত আরও কিছু প্রশিক্ষণ
১. অ্যাডভান্সড সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন
২. সার্টিফায়েড ইমেইল মার্কেটার
৩. সার্টিফায়েড ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপার
৪. সার্টিফায়েড ওয়েব ডিজাইনার
৫. সার্টিফায়েড জুমলা ডেভেলপার
৬. প্রফেশনাল ব্লগিং অ্যান্ড অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং
৭. বিজনেস প্লান রাইটিং
৮. কিলার কপিরাইটিং
৯. মোবাইল ইউআই/ইউএক্স ডিজাইন

comments

3 COMMENTS

  1. ধন্যবাদ ডেভসটিম কর্তৃপক্ষকে আপনাদের দেয়া উপরিউক্ত গুরুত্বপূর্ন পোষ্টগুলি দেয়ার জন্য। কারন আমি ও একজন আগ্রহী গ্রাফিক্স ডিজাইনার কিন্তু আমার একটা সমস্যা হচ্ছে আমার মধ্যে ক্রিয়েটিভিটি কম তবে আমি এটাকেই প্রফেশন হিসাবে নিতে চাচ্ছি আমার মধ্যে প্রচন্ড ইচ্ছা বাট আমি ফটোশপ বা ইলাস্ট্রের ব্যবহার করে নতুন নতুন কিছু আবিষ্কার করা আমার পক্ষে জটিল হয়ে যায়।
    এমতাবস্থায় আমি আপনাদের কাছে সাজেশন চাচ্ছি আমি গ্রাফিক্স ডিজাইনে কিভাবে ভালো কিছু করতে পারবো। আশা করি উপযুক্ত সাজেশন দিয়ে আমাকে উপকৃত করবেন।
    রুস্তম

    • আপনি অনলাইন থেকে বিভিন্ন রিসোর্স পড়তে থাকেন। বর্তমান মার্কেটট্রেন্ড দেখতে থাকেন ও প্রাকটিস করতে থাকেন। চেষ্টা থাকলে সবই সম্ভব। আর বাড়তি কোনো গাইডলাইন প্রয়োজন হলে ডেভসটিম আসতে পারেন, আশাকরি সফল গাইডলাইন পাবেন…

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here