কম্পিউটারের গতি বাড়ানোর কয়েকটি বিশেষ টিপস্

লেখক : , প্রকাশকাল : 05 April, 2013

আমি আর্ন ট্রিক্সতে নতুন এটি আমার আর্ন ট্রিক্স এ করা সর্বপ্রথম পোষ্ট তাই কোন প্রকার ভুল হলে মাফ করে দিবেন।

আমরা সবাই মোটামুটি কম্পিউটার ব্যবহার করি।খোঁজ করলে খুব কম মানুষই পাওয়া যাবে,যারা কম্পিউটার সম্পর্কে যানে না বা ব্যবহার করতে পারে না।প্রায় অনেকের কাছেই কম্পিউটার রয়েছে।যন্ত্রটি প্রায় সবার কাছেই প্রিয়।এবার কাজের কথায় আসা যাক,এই প্রিয় জিনিসটির যদি কোন সমস্যা হয় তাহলে মনটা একটু খারাপই হয়।যেমন ধরুন আপনার মনে হচ্ছে যে,আমার কম্পিউটারের স্পিড দিন দিন কমে যাচ্ছে।প্রথম অবস্থায় বা উইন্ডোজ দেওয়ার পরে কম্পিউটারের যে গতি ছিল তা এখন আর নেই।এ সমস্যার অন্যতম কারন হলো আমরা নিজেরাই।

আমরা কম্পিউটারে প্রায় কোন না কোন সফট্ওয়্যার ইন্সষ্টল করছি আর প্রত্যেহ কম্পিউটার চালাতে-চালাতে কিছু অপ্রোয়জনীয় ফাইল এসে জমা হচ্ছে আমাদের কম্পিউটারে।দিনে দিনে জমাকৃত ফাইলগুলি কম্পিউটার থেকে পরিষ্কার না করার ফলে আস্তে-আস্তে কম্পিউটারের গতি কমছে।চিন্তার কোন কারন নেই আমি কিছু টিপস্ দিলাম যা কম্পিউটারের গতি বাড়াতে ও অপ্রোয়জনীয় ফাইলকে ডিলিট করতে সাহায্যে করবে,তবে সমস্যাগুলো যদি সফটওয়্যার সংক্রান্ত হয়ে থাকে।আশা করি টিপস্ গুলো কাজে লাগবে।

১. আপনার কম্পিউটারের ডেস্কটপে যে রিসাইকেল বিন রয়েছে তাতে যদি কোন ধরনের ফাইল থাকে তাহলে তা মুছে ফেলে দিন।আর সবসময় রিসাইকেলবিন ফাঁকা রাখার চেষ্টা করুন।

২. Start মেন্যু থেকে রান প্রোগ্রামে যান এবং নিচের প্রতিটি শব্দ একবার করে লিখে কি-বোর্ড থেকে এন্টার কী প্রেস করুন। recent, temp, %temp%, Prefetch.

৩. এবার Run অপশনের ঘরে গিয়ে টাইপ করুন msconfig এবং ok তে ক্লিক করুন এবার নতুন একটি উইন্ডো আসবে।সেখানে থেকে Startup ট্যাবটি সিলেক্ট করুন।যে সব প্রোগ্রাম আপনার সামনে আসবে।সেখানে থেকে যেসব অপ্রয়োজনীয় প্রোগ্রাম কম্পিউটার ‍START UP হওয়ার সময় দেখতে চান না সেগুলির পার্শ্বে থেকে টিক চিহ্নটি উঠিয়ে দিন এবার প্রোগ্রামকে সেভ করার জন্য OK বাটনে প্রেস করুন এবং এরপর যে উইন্ডো আসবে তাতে Restart বাটনে ক্লিক করে কম্পিউটার রিস্টার্ট দিন।কাজ শেষ।

৪. ডেস্কটপ থেকে My computer তে যান।এবার কি-বোর্ড থেকে ctrl কী চেপে ধরে h কী চাপুন।বাম পাশে যে হিস্ট্রিগুলো দেখতে পাচ্ছেন সেগুলো একটি-একটি করে সিলেক্ট করে মাউসের ডান বাটনে ক্লিক করে delete এ ক্লিক করে হিস্ট্রিগুলো ডিলিট করে দিন।এই প্রক্রিয়াটি windows xp এর জন্য।

কাজগুলো সঠিকভাবে করতে পারলে আশা করছি আপনার পিসি আগের থেকে দ্রুতগতি হবে।আজ এখানেই বিদায় নিচ্ছি।সবার সামনে আবার দেখা হবে নতুন কোন বিষয় নিয়ে।সবাই ভাল থাকবেন আর আমাদের সাথেই থাকুন।ধন্যবাদ সবাইকে।

আমার ওয়েবসাইট: www.hrcomputerbd.com

comments

মন্তব্য প্রদান করুন

*