ডিসেম্বরে ঢাকায় ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড! আসছে গুগলের স্ট্রিট ভিউ গাড়ি!!

লেখক : , প্রকাশকাল : 24 November, 2012

তথ্যপ্রযুক্তিতে এগিয়ে যাচ্ছে বিশ্ব। সেই ধারাবাহিতায় এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। বিশ্বের সামনে বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতকে তুলে ধরতে এবং পারষ্পরিক অভিজ্ঞতা বিনিময় করতে ঢাকায় শুরু হচ্ছে ৩দিন ব্যাপি ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড। ‘সমৃদ্ধির জন্য জ্ঞান’ শ্লোগানকে সামনে রেখে আয়োজিত এ সম্মেলণ আগামী ৬ ডিসেম্বর রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলণ কেন্দ্রে [চীন মৈত্রী সম্মেলণ কেন্দ্র] অনুষ্ঠিত হবে। নানা আয়োজনে সমৃদ্ধ এ সম্মেলণের আয়োজক বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল

তথ্যপ্রযুক্তিতে এগিয়ে যেতে অবশ্যই অন্যরা কি করছে, উন্নত বিশ্বে কোন ধরনের প্রযুক্তি ব্যবহার হচ্ছে বা প্রযুক্তিখাতের সংশ্লিষ্ঠরা কি ভাবছেন তা জানা বা নিজেদের প্রযুক্তি সম্পর্কে তাদের জানানো জরুরী। আর এই কাজটি করতে ও বিশ্বের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সঙ্গে বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের মেলবন্ধন ঘটানোর জন্য চেষ্টা করা হচ্ছে। সরকার ২০২১ সালের  মধ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশ হিসেবে বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছে। আর ডিজিটাল বাংলাদেশের সঙ্গে বিশ্বকে পরিচিত করতেই ‘ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড বা ডিজিটাল বিশ্ব’ সম্মেলন।

home_meeting Digital world 2012

গত বছরের ঠিক এই সময়ে একই স্থানে আয়োজিত হয় ‘ই-এশিয়া’ সম্মেলণ। তারই ধারাবাহিকতা বলা চলে ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড। ই-এশিয়া অবশ্য শুধু এশিয়ার দেশগুলোই নিয়েই আয়োজিত হয়েছিলো। এটির মূল আয়োজক ছিল অবশ্য ভারত। তবে এ বছর শুধু এশিয়া নয়, গোটা বিশ্বই জড়িত আছে! বৃহৎ এ সম্মেলনে বিশ্বের বিভিন্ন উন্নত ও উন্নয়নশীল দেশের আইসিটি খাতের নানা বিষয় থাকছে। থাকবে সামাজিক ও অর্থনৈতিক উন্নয়নে প্রযুক্তিগত বিভিন্ন সেবা ও কর্মকান্ড। এছাড়া আয়োজনে অংশ হিসেবে তথ্যপ্রযুক্তির নানা বিষয়ের ওপর সেমিনার, কর্মশালা, ক্যাম্প থাকছে। প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে আয়োজিত হবে উদ্যোক্তাদের নিয়ে বিশেষ প্রোগ্রাম। আয়োজন সম্পর্কে আইসিটি মন্ত্রণালয়ের সচিব নজরুল ইসলাম খান জানিয়েছেন, শেখা ও শেখানো, জানা ও জানানো, দেখা ও দেখানোর এ আয়োজন। এতে পারষ্পরিক আলোচনাসহ সম্ভাবনাময় ফ্রিল্যান্স আউটসোর্সিং, তথ্যপ্রযুক্তির বিশ্ব বাজার, ফ্রিল্যান্সারদের উদ্যোক্তা হওয়ার নানা বিষয় ইত্যাদি। থাকবে ডিজিটাল কন্টেন্ট ও মাল্টিমিডিয়া শ্রেণীকক্ষের প্রদর্শনী, ক্লাউড ক্যাম্প। অংশ নেবেন দেশ-বিদেশের তথ্যপ্রযুক্তিবিদ ও বিশেষজ্ঞরা। আলোচিত আরেকটি বিষয় হলো, গুগলের স্ট্রিট ভিউও যাত্রা শুরু করবে এই সম্মেলনে। সম্মেলন উদ্বোধন করবেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মূল আয়োজনের প্রধান তিনটি দিক
ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের মূল তিনটি দিক নির্ধারণ করা হয়েছে। এগুলো হলো, বিগত বছর সমূহে ডিজিটাল বাংলাদেশের বিভিন্ন কার্যক্রমের বিষয়গুলো তুলে ধরা, নীতিনির্ধারক, শিক্ষার্থী এবং তরুণদের জন্য জ্ঞান বিনিময়ের একটি প্ল্যাটফর্ম গড়ে তোলা এবং তরুণদের উদ্যোক্তা হওয়ার মাধ্যমে আত্বকর্মসংস্থানে অনুপ্রাণিত করা। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে দারিদ্র দূরীকরণ, অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়নের হাতিয়ার হিসেবে আইসিটির সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে অর্থনৈতিক উন্নয়ন, সুশাসন ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা, মানসম্মত সর্বজনীন শিক্ষা, স্বাস্থ্যসেবার উন্নয়ন ও আয়োজনে লক্ষ্য।

cloud_campক্লাউড ক্যাম্প
তরুণ ও তথপ্রযুক্তি পেশাজীবীদের ক্লাউড কম্পিউটিংয়ের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিতে বিভিন্ন দেশ ও শহরে ক্লাউড ক্যাম্পের আয়োজন করা হয়। এবারই দেশে প্রথম আয়োজিত হচ্ছে ক্লাউড ক্যাম্প । যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ক্লাউড ক্যাম্পেরর সহযোগিতায় ক্যাম্পে ক্লাউড কম্পিউটিংয়ের নানা রকম তাত্ত্বিক ও ব্যবহারিক বিষয় নিয়ে আলোচনা করবেন আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞরা। এ ক্যাম্পে অংশ নিতে আসবেন অনলাইন প্রতিষ্ঠান গ্যাজলের প্রতিষ্ঠাতা আদিত্য ওয়াতাল, ডেলের ওপেন স্টেক প্রকল্পের স্থপতি জুড মার্টিল, ক্লাউড নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ লেনি জেল্টস, ভার্চুস্ট্রিমের জ্যেষ্ঠ ভাইস প্রেসিডেন্ট রুভেন কোহেনসহ অনেকে। সম্মেলণের প্রথমদিনে একটি সেমিনারে তুলে ধরা হবে ক্লাউড কম্পিউটিংয়ের বিভিন্ন দিক। পরদিন ৭ ডিসেম্বর ক্লাউড ক্যাম্পে ওপেন স্টেক, বিগ ডেটা, ক্লাউড নিরাপত্তা, মোবাইল অ্যাপলিকেশন ইত্যাদি সম্পর্কে আলোচনা হবে।

digital_conferenceউদ্যোক্তা সম্মেলন
তথ্যপ্রযুক্তির অগ্রযাত্রার এই সময়ে শুধু চাকরি করার নয়, চাকরি দেওয়াও জরুরী। তাই উদ্যোক্তা তৈরিতে উৎসাহ দিতে ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে বিশেষ আয়োজন থাকছে। সফল উদ্যোক্তাদের সঙ্গে অভিজ্ঞতা বিনিময়, যোগাযোগ স্থাপন, ব্যবসা পরিকল্পনা শীর্ষক প্রশিক্ষণ, আইসিটিভিত্তিক নতুন পণ্য বা সেবা চালুর ঘোষণাসহ নানা বিষয় থাকছে এই আয়োজনে। একটি পর্বে উদ্যোক্তাদের বিকাশের প্রধান তিনটি ধাপ উদ্ভাবন, পরিচর্যা ও বিনিয়োগ নিয়ে আলোচনা করবেন সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞরা। এ সম্মেলনে পাঁচ শতাধিক উদ্যোক্তা অংশ নেবেন বলে আশা করছেন আয়োজকরা। উদ্যোক্তা সম্মেলনে অংশ নেবেন যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল বিজনেস ইনকিউবেশন অ্যাসোসিয়েশনের পরিচালক টম স্ট্রোডথবেক, পার্কলাইন অ্যানালাইটিক্সের প্রতিষ্ঠাতা ভিনোজ ভিজেয় কুমারসহ দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সফল উদ্যোক্তা।

থাকছে ফ্রিল্যান্সারদের জন্যও বিশেষ আয়োজন
তথ্যপ্রযুক্তির এ বিশেষ সম্মেলনে ফ্রিল্যান্সারদের জন্য আয়োজন থাকবে না সেটি কি হয়? তাই এবারের ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে রয়েছে ফ্রিল্যান্সিং সম্মেলন। এতে দেশীয় বিশেষজ্ঞ ও ফ্রিল্যান্সারদের সঙ্গে বিদেশি তথ্য প্রযুক্তিবিদ ও ফ্রিল্যান্সিং-সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ ব্যক্তিরা উপস্থিত থাকবেন। ৭ ডিসেম্বরের দিনব্যাপী এ আয়োজনের অন্যতম মূল লক্ষ্য হচ্ছে দেশীয় ফ্রিল্যান্সারদের পথনির্দেশনা, উৎসাহ ও দিকনির্দেশনা প্রদান। এতে আগামী দিনের ফ্রিল্যান্স আউটসোর্সিং, জনপ্রিয় ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসের সঙ্গে পরিচয় এবং ফ্রিল্যান্সার থেকে উদ্যোক্তা হওয়ার নানা বিষয় প্রাধান্য পাবে। উপস্থিত থাকবেন জনপ্রিয় ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস ফ্রিল্যান্সার ডট কমের ভাইস প্রেসিডেন্ট [প্রকৌশল] ডেভিড হ্যারিসন, ইল্যান্স ডট কমের ভাইস প্রেসিডেন্ট জেটিল ওলসেন ও পরিচালক [বিপণন] অ্যালেক্স ইয়োনম, ওডেস্কের ভাইস প্রেসিডেন্ট [মার্কেটপ্লেস অপারেশন] ম্যাট কুপারসহ অনেকে। এছাড়া  থাকবেন বেসিস নির্বাচিত বর্ষসেরা ফ্রিল্যান্সাররা।freelancer_conf


বাড়তি আয়োজন

সেমিনার ও কর্মশালা ছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয় ও উচ্চবিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অনুপ্রেরণা দেওয়ার জন্য রয়েছে দুটি বিশেষ আয়োজন। শিশুদের অংশগ্রহণে থাকবে চিলড্রেনস ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড নামের একটি বিশেষ অনুষ্ঠান। তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহারে নারীর ক্ষমতায়ন এবং নারীর প্রতি সহিংসতা রোধে তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহারবিষয়ক আন্তর্জাতিক প্রচারণা টেক ব্যাক দ্য টেক- এরও যাত্রা শুরু হবে এখান থেকে। এ ছাড়া দেশের আইসিটি খাতের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বেশ কিছু জরিপ ও গবেষণা পরিচালনা করা হবে। থাকবে ইন্টারনেট জোন। সরাসরি উপস্থিত হওয়া ছাড়াও অনলাইনে সম্মেলণ উপভোগ করতে পারা যাবে। সম্মেলন সম্পর্কে আরো বিস্তারিত জানা যাবে ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের ওয়েবসাইট থেকে।

যারা থাকছেন এ সম্মেলনে
বিভিন্ন দেশের তথ্য প্রযুক্তি উদ্যোক্তা, ব্যবসায়ী, বিভিন্ন আন্তর্জাতিক তথ্য প্রযুক্তি নির্ভর প্রতিষ্ঠানের সদস্য, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, তথ্য প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞদের সম্মলেনে অংশগ্রহণের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। সবচেয়ে বেশি স্পিকার আসছেন আমেরিকা থেকে। এছাড়া সিঙ্গাপুর, ইউকে, দক্ষিণ আফ্রিকা, অস্ট্রেলিয়া, পাকিস্তান, কোরিয়া, থাইল্যান্ড, এস্তোনিয়া, ভারতসহ একাধিক দেশ থেকে বিশেষজ্ঞরা আসছেন। আন্তর্জাতিক ফ্রিল্যান্সিং সাইট ওডেস্ক, ফ্রিল্যান্সার ডট কম, ইল্যান্সসহ বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সিং মার্কেট প্লেসের শীর্ষ কর্মকর্তারা ও অভিজ্ঞ ফ্রিল্যান্সরা ছাড়াও দেশীয় মুক্তপেশাজীবিরা উপস্থিত থাকছেন।

আয়োজনের পিছনে যারা
বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল আয়োজন করছে সম্মেলনটি। আর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন এর সহ আয়োজক। দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সংগঠন বিসিএস, বেসিস, আইএসপিএবি, বাকো ও এমটব এ আয়োজনে সহযোগিতা করছে। এ ছাড়া বিআইজেএফ, অ্যাসোসিয়েশন অব প্রোগ্রেসিভ কমিউনিকেশন, ক্লাউড ক্যাম্পসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান অংশীদার হিসেবে কাজ করছে। সম্মেলনে সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট ও ইন্টারনেট মার্কেটিং প্রতিষ্ঠান ডেভসটিম লিমিটেডসহ বিভিন্ন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান তাদের বিভিন্ন সেবা প্রদর্শণ করবে। এ জন্য ইতিমধ্যে স্টলও বরাদ্ধ করা হচ্ছে।

লেখাটি সর্বপ্রথম দৈনিক সমকালে প্রকাশিত।

comments

মন্তব্য প্রদান করুন

*