জিতে নিন ২৫ হাজার ডলার!

লেখক : , প্রকাশকাল : 11 November, 2012

ক্ষুদ্র ব্যবসা ও অনলাইনে কাজের ক্ষেত্র হিসেবে বিবেচিত বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় আউটসোসিং ও ক্রাউডসোসিং মার্কেটপ্লেস ফ্রিল্যান্সার ডট কম। বিশ্বের ২৩৪টি দেশের প্রায় ৪৩ লাখ ফ্রিল্যান্সার প্রতিনিয়ত এই সাইটে বিভিন্ন কাজ করে হাজার হাজার ডলায় আয় করছেন। বিশ্বব্যাপি প্রচারণার অংশ হিসেবে গত বছরের মতো এবারো আয়োজিত হচ্ছে ‘লোগো এক্সপোজ’ শীর্ষক প্রতিযোগিতা। পুরস্কার হিসেবে বিজয়ীরা পাবেন ২৫ হাজার ডলার। গত বছরের মতো এবারের বিজয়ীর মুকুটটি বাংলাদেশে আনতে করনীয় বিষয়গুলো জেনে অংশ নিতে হবে প্রতিযোগিতায়!

অনলাইনে কাজের ক্ষেত্র হিসেবে ফ্রিল্যান্সার ডট কম এর পরিধি ক্রমশই বৃহৎ হচ্ছে। কাজের পাশাপাশি প্রতিনিয়ত বিভিন্ন প্রতিযোগিতার মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সারদের বৃহৎ অংকের বাড়তি আয়ের সুযোগ করে দিচ্ছে সাইটটি। এমনই একটি প্রতিযোগিতা ‘এক্সপোজ আওয়ার লোগো’।

যেভাবে শুরু
ফ্রিল্যান্সার লোগো বিশ্বব্যাপি নানাভাবে উপস্থাপনের মাধ্যমে সাইটটিকে আরো বিস্তৃত করাই এই প্রতিযোগিতার মূল উদ্দেশ্য। গতবছর প্রথমবারের মতো এই প্রতিযোগিতা শুরু হয়। প্রতিযোগিতা সম্পর্কে ফ্রিল্যান্সার ডট কমের প্রধান নির্বাহী ম্যাট ব্যারি জানান, আমরা লোগোটির মাধ্যমেই যেন ফ্রিল্যান্সার বিশ্বব্যাপি পরিচিতি পায় সে লক্ষ্যে মেধাবী ফ্রিল্যান্সারদের নিয়ে প্রতিযোগিতা আয়োজন করি। ফ্রিল্যান্সার ডট কম কর্তৃপক্ষ চাচ্ছিলেন নিজেদের লোগোটিকে অনন্যভাবে তৈরি করতে। এজন্যই প্রতিযোগিতার নাম দেওয়া হয় ‘এক্সপোজ আওয়ার লোগো’। ২০ জনকে পুরস্কারের জন্য মনোনীত করা হয়। বিজয়ীদের জন্য ছিল ২৫ হাজার ডলার পুরস্কার। আর এই প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হয়ে ১০ হাজার ডলার জিতে নেন বাংলাদেশি ফ্রিল্যান্সার নাজমা রহমান, শাওন রহমান ও তার সহকর্মীরা। চাঁপাইনবাবগঞ্জের কানসাট উপজেলার শাহবাজপুর ইউনিয়নে দুই হাজার বর্গফুটের বিশাল ব্যানার নিয়ে আয়োজিত অনুষ্টানে মুগ্ধ হয়ে শাওনকে বিজয়ী হিসেবে ঘোষনা করেন ফ্রিল্যান্সার কর্তৃপক্ষ। প্রতিযোগিতায় দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকার করেন পাকিস্তানের ফ্রিল্যান্সার ওয়াসিম সাজ্জাদ এবং নেপালের ফ্রিল্যান্সার গোরাখনাথ তিমিলসিনা। তার পান যথাক্রমে দুই হাজার ৫০০ ও এক হাজার ৫০০ ডলার। প্রতিযোগিতায় পিপল চয়েস ক্যাটাগরিতে সেরা হয়ে ফিলিপাইনের ফ্রিল্যান্সার আনুদ বানদোলা জিতে নেন ৫ হাজার ডলার।

Freelancer Logo expose

এবারের প্রতিযোগিতা
গতবারের মতো এবারো আয়োজিত হচ্ছে ‘এক্সপোজ আওয়ার লোগো’ প্রতিযোগিতা। এ সম্পর্কে ফ্রিল্যান্সার ডট কম সাইটে বলা হয়েছে, প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে ফ্রিল্যান্সার লোগোকে ক্রিয়েটিভভাবে উপস্থাপন করতে হবে এবং এটি মানুষের সামনে উপস্থাপন করতে হবে। এ সম্পর্কিত ভিডিওধারণ করে আমাদের কাছে পাঠাতে হবে ও ইউটিউবে আপলোড করে প্রচার করতে হবে। প্রতিযোগিদের মধ্যে যার আয়োজনে সবচেয়ে বেশি মানুষ উপস্থিত হবে, প্রচার হবে এবং বেশি ভাইরাল হবে তাকে বিজয়ী ঘোষনা করা হবে। গত ২৬ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হওয়া এই প্রতিযোগিতা চলবে আগামী ২৫ নভেম্বর পর্যন্ত। এই সময়ের মধ্যে প্রতিযোগিতার নিয়মানুযায়ী ফ্রিল্যান্সারের লোগো নিয়ে ভিন্নধর্মী আয়োজন করতে হবে। যতবেশি সম্ভব মানুষের উপস্থিতি ঘটাতে হবে। ছড়িয়ে দিতে হবে সবার মাঝে। এভাবে যে যেভাবে খুশি লোগো এক্সপোজ করে প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারেন। নিদিষ্ঠ সময়ের মধ্যেই এগুলোর ভিডিও সাবমিট করতে হবে। পরবর্তী এক সপ্তাহের মধ্যে ফ্রিল্যান্সার কর্তৃপক্ষ চূড়ান্ত ২০ বিজয়ী নির্বাচিত করবেন। ৫ ডিসেম্বর চূড়ান্ত বিজয়ীদের নাম ঘোষনা করা হবে। আগ্রহীরা গতবছরের প্রতিযোগিকতার ভিডিও দেখে এই সম্পর্কে ধারণা নিতে পারবেন। এই লিংক থেকে গতবছরের প্রতিযোগিতা সম্পর্কে জানা যাবে।

যারা অংশ নিতে পারবেন
ফ্রিল্যান্সার ডট কমের ভাষ্যমতে, ‘প্রতিযোগিতায় বিশ্বের যেকোনো প্রান্ত থেকে যে কেউ অংশগ্রহণ করতে পারবেন। আপনি বাংলাদেশ, ভারত, রোমানিয়া, লিথুয়ানিয়া, ফিলিপাইন অথবা অন্য যেকোনো জায়গায় থাকুন না কেনো সেটি বিষয় নয়! আমরা সারাবিশ্বব্যাপি ফ্রিল্যান্সার চাই। প্রতিযোগিকে অবশ্যই ফ্রিল্যান্সার ডট কমের নিবন্ধিত সদস্য হতে হবে, যেটি সম্পূর্ণ ফ্রি! যারা নিবন্ধিত নন তারা বিনামুল্যে নিবন্ধন করে এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারবেন। একক অথবা গ্র“পের মাধ্যমে অংশগ্রহণ করা যাবে।

প্রতিযোগিতার নিয়মনীতি
যেকেউ পজিটিভলি যেকোনোভাবে লোগো এক্সপোজ বা প্রচার করতে পারবেন। তবে প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে অবশ্যই কিছু নিয়মনীতি মেনে চলতে হবে। অন্যথায় আপনি প্রতিযোগি হিসেবে বিবেচিত হবেন না। এসব নিয়মনীতির মধ্যে রয়েছে, লোগো এক্সপোজ বিষয়ে আপনার আয়োজন অবশ্যই পজিটিভলি ফ্রিল্যান্সার ডট কমে সাবমিট করতে হবে। সাবমিট করতে এই পেজটিতে গিয়ে ‘এন্টার নাও’ বাটনে ক্লিক করতে হবে। সাবমিটের ক্ষেত্রে কোনো ভুল হলে বা অনৈতিকভাবে সাবমিট করা হলে এটি বাতিল করা হবে। এখানে কোনোভাবেই অপমানসূচক, যৌন উত্তেজক, আক্রমনাত্বক, জাতি বিভেদ, অমার্জিত, অসহনীয় আক্রমনাত্বক ছবি বা কথা ব্যবহার করা যাবে না। সাবমিট করা প্রতিটি এন্টিতে অবশ্যই ফ্রিল্যান্সার ডটকমের লোগো ব্যবহার থাকতে হবে। যেটি এই লিংক থেকে ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে হবে। টিম গঠন করলে গ্র“পভাবে প্রজেক্ট এন্টি করা যাবে। সকল এন্টি ফ্রিল্যান্সার ডট কম সাইটে পাবলিকলি প্রকাশ করা হবে এবং এটি ফ্রিল্যান্সার ডট কমের সম্পদ হিসেবে বিবেচিত হবে, যা অফেরতযোগ্য। সাবমিট করা ভিডিওটি এমওভি,এভিআই, এমপিজি, এমপিইজি, ওজিজি, এমপিফোর, ডিভিআই, এফএলভি ফরম্যাটের হতে হবে। ভিডিওটির সর্বোচ্চ সময়সীমা ২ মিনিট এবং ৭২০ পিক্সেলের হতে হবে। এছাড়া ভিডিওটির এনকোডিং অবশ্যই এমপিইজিফোর, এইচ/২৬৪, এক্সভিআইডি অথবা কুইকটাইমে হতে হবে। আর হ্যাঁ, ভিডিও প্লে সর্বোচ্চ ৪০০ কেবিএস ও অডিও প্লে ৬৪ কেবিএস হতে হবে এবং অডিও অবশ্যই এমপিথ্রি ফরম্যাটে হবে। সকল ভিডিও ১৬:৯ অ্যাসপেক্ট রেশিও এবং সেন্টার হতে হবে। যেখানে ফ্রিল্যান্সার ডট কমের লোগো প্রকাশ পাবে সেখানে কোনোভাবেই অন্য টেক্সট প্রকাশ করা যাবে না, যা লোগোটি সম্পূর্ণভাবে প্রকাশে রোধ সৃষ্টি করে। পরবর্তীতে প্রকাশের জন্য বিজয়ীদের কাছ থেকে অরিজিনাল অডিও ও ভিডিও চাওয়া হতে পারে, তাই এটি সম্পূর্ণরুপে সংরক্ষণ করতে হবে।

পুরস্কার হিসেবে যা থাকছে
প্রতিযোগিতার পুরস্কার হিসেবে থাকছে ২৫ হাজার ডলার। মোট ১০টি ক্যাটাগরিতে এই পুরস্কার দেওয়া হবে। সর্বশ্রেষ্ঠ এক্সপোজার হিসেবে চূড়ান্ত বিজয়ী পাবেন ১০ হাজার ডলার। এছাড়া সবচেয়ে বেশি মানুষ প্রচার করা আয়োজনটি ৩ হাজার ডলার, সবচেয়ে বেশি মানুষ অংশগ্রহনকারী আয়োজনের ক্ষেত্রে ৩ হাজার ডলার, সবচেয়ে বড় লোগোর ক্ষেত্রে ৩ হাজার ডলার, সবচেয়ে বেশি বৈশিষ্ঠ্যসম্পন্ন আয়োজনটি ১ হাজার ডলার, সবচেয়ে ভালো ফানুষ (আগুনের বেলুন), সবচেয়ে বেশি মিডিয়া কাভারের হওয়া আয়োজনটি ১ হাজার ডলার, জনপ্রিয় পাথরের উপরের সবচেয়ে ভালো খোদাইকরা লোগোর (Best Celebrity Cameo Appearance) ক্ষেত্রে ১ হাজার ডলার, Most Reddited এর ক্ষেত্রে ১ হাজার ডলার ও লোগোসহ পরিহিত পোশাকের ক্যাটাগরিতে ১ হাজার ডলার পুরস্কার দেওয়া হবে।

আগের মতোই পুরস্কার আসুক বাংলাদেশে!
ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসগুলোতে বাংলাদেশের অবস্থান প্রথমসারিতে। বর্তমানে ফ্রিল্যান্সার ডট কম সাইটটিতে বাংলাদেশের অবস্থান সপ্তম। অন্যদিকে সর্ববৃহৎ মার্কেটপ্লেস ওডেস্কে বাংলাদেশের অবস্থান তৃতীয়। প্রথমবারের মতো ফ্রিল্যান্সার আয়োজিত লোগো এক্সপোজার প্রতিযোগিতায় প্রথম হয় বাংলাদেশ। পুরস্কার হিসেবে আসে ১০ হাজার ডলার। পরবর্তীতে এ বছরের গত জুনে ফ্রিল্যান্সার ডট কম আয়োজিত ‘এসইও অ্যান্ড কনটেন্ট রাইটিং’ শীর্ষক আরেকটি প্রতিযোগিতায়ও প্রথম হয় বাংলাদেশি ওয়েব অ্যাপ্লিকেশন ও সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট প্রতিষ্ঠান ডেভসটিম লিমিটেড । আরেকবারের মতো বিশ্বের দরবারে শীর্ষ হিসেবে উচ্চারিত হয় বাংলাদেশের নাম। এ প্রসঙ্গে ডেভসটিমের প্রধান নির্বাহী আল-আমিন কবির বলেন, ফ্রিল্যান্সিং এ বাংলাদেশিদের অবস্থান ক্রমশই দৃড় হচ্ছে। এ ক্ষেত্রে উৎসাহ হিসেবে কাজ করছে অনলাইন মার্কেটপ্লেস ফ্রিল্যান্সার ডট কম। তাদের আয়োজিত বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশিরা জয়ী হয়ে প্রমান করেছে আমরাও পারি। এখন আরেকটি সুযোগ এসেছে। আগের মতোই এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে পুরস্কার ছিনিয়ে আনা প্রয়োজন। তাহলে তথ্যপ্রযুক্তিতে বাংলাদেশ সমগ্রবিশ্বে প্রতিনিধিত্ব করবে সেটার ভবিষৎবানী করার আরেকটি সুযোগ আসবে।

লেখাটি সর্বপ্রথম দৈনিক সমকালের সাপ্তাহিক তথ্যপ্রযুক্তি পাতা অনলাইন এ প্রকাশিত…

comments

Comments

  1. ও আমার ফ্রীলান্সার ভাইয়েরা , তোমরা যদি এই পুরস্কার জিত্তে চাও, তাহলে তারাতারি অংশগ্রহন কর।

  2. দেখি জিত্তে পারিকিনা ২৫ হাজার ডলার!

  3. এম. ইয়াকুব ভূঞা says:

    খুবই উৎসাহব্যঞ্চক লেখা। অনেক অনেক অনেক ধন্যবাদ।

মন্তব্য প্রদান করুন

*